গা চাটাচাটির ব্যাপার - মোল্লা নাসিরউদ্দিন

     মোল্লা সেদিন দরবারে হাজির হওয়ামাত্রই বাদশা খুশী হলেন। ‘ওহে, তোমার কথাই ভাবছিলুম আমি। কাল রাতে দারুণ এক স্বপ্ন দেখেছি। তুমি আর আমি দুজনে পাশাপাশি অন্দরমহলের উদ্যানের পথে চলছি। হঠাৎ একটা বাঘ ডেকে উঠলো আমার চিড়িয়াখানা থেকে। দুজনেই চমকে উঠলাম, আমি পড়ে গেলাম পাশের গোলাপী আতরের নালায়, কিন্তু কী দুঃখের বিষয় নাসির, তুমি পড়ে গেলে একেবারে নর্দমার ভেতর। তারপরেই ঘুম ভেঙে গেল।’
     গল্পটা শুনে পরিষদের খুব খুশী। আজ বাদশা নাসিরকে বেশ জব্দ করেছেন।
     একটুও না ঘাবড়ে নাসির বলেন—‘হুজুর, কি অদ্ভূত ব্যাপার বলুন দেখি, আমিও ঠিক কাল অনুরূপ এক স্বপ্ন দেখেছি। তবে আপনার ঘুমটা যখন ভেঙে গেল, আমি কিন্তু তখনো স্বপ্ন দেখে চলেছি।’
     ‘তাই নাকি? তাহলে তুমি নর্দমায় পড়ে মল-মূত্রে হাবুডুকু খাচ্ছিলে?’
    ‘নিশ্চয়ই জাঁহাপনা, মোল্লা বলে চলেন, ‘এখন শুনুন, অামি তো কোনমতে বিষ্ঠাময় দেহ নিয়ে তীরে পৌছলুম। এমন সময় দেখি, হুজুর আতরের নালায় পড়ে সাঁতার না জানার ফলে হাবুডুবু খেতে খেতে বহু কষ্টে ডাঙ্গায় উঠেছেন, আপনার হাফ ধরেছে, ঠোঁট শুকিয়ে গেছে, তেষ্টা পেয়েছে। তাই জলতেষ্টায় আপনি আমার গা চেটে সাফ করলেন, আর পরিশ্রমে আমারও তেষ্টা পেয়েছিল, আমি আপনার গা চাটতে লাগলুম। তার পরেই ঘুম ভেঙ্গে গেল।’
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য