পানির সমস্যার সমাধান - মোল্লা নাসিরউদ্দিন

       দুর্দান্ত গরম পড়েছে। ওদিকে মেঘের দেখা নেই। কবে বৃষ্টি হবে কে জানে, কুয়োর জল একেবারে নীচে ঠেকেছে, সবাই কাদাগোলা জল ব্যবহার করতে বাধ্য হচ্ছে।
        এমন সময় গ্রামবাসীরা মোল্লার মত এক বিজ্ঞ, জ্ঞানীজনের পরামর্শ চাইতে আসে।
       ‘অঃ, এই ব্যাপার ! ঠিক আছে, আগে বাজার থেকে একটা বড় দেখে সাবান এনে দাও দেখি।’
       একজন ছুটে গিয়ে নিজের ট্যাঁকের পয়সা খরচ করে ইয়া বড় এক সাবান কিনে আনে।
       এরপর মোল্লা বাড়ীর ভেতর গিয়ে বহুদিনের পুরনো সব জামা কাপড়গুলো বের করে বলেন,—‘এবারে এগুলোতে সাবান মাখাও৷’
       —সাবান দেয়া হোল । 
      অতঃপর হুকুম, “ভাল করে কেচে রোদে শুকুতে দাও।’ 
       মোল্লা যা-যা পরামর্শ দেন, সবই তামিল করা হলে পর একজন আর থাকতে না পেরে জিগ্যেস করে,—মোল্লাজী, বৃষ্টির সঙ্গে কাপড়-চোপড় কেচে রোদে দেবার সম্পর্কটা কি?’
       বা-রে, দেখেনি, যেই তুমি কোনোকিছু শুকুতে দেবে, অম্নি বৃষ্টি নেমে নাজেহাল করবে। তাই তোমরাও অপেক্ষা করতে থাকো। আমি ঘুমুতে যাই।
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য