বিশ্রী রোগ

     আকবর বাদশা একদিন মৃগয়ায় গিয়ে এক বনে প্রবেশ করে দেখলেন একটি বালক সেখানে নিজের মনে ঘুরে ঘুরে কাঠ কুডুচ্ছে।
     বাদশা একটু মজা করার জন্য বালকটিকে জিজ্ঞেস করলেন,“আচ্ছা তোমাদের বাদশা লোকটি কেমন? ভাল না বদমাশ?”
     বালকটি বলল, ‘বড় বদমাশ।’ 
     বাদশা একটু চটে বললেন, ‘তুই আমাকে চিনিস? আমিই বাদশা। ইচ্ছে করলে আমি তোর মাথা নিতে পারি।’
     বালকটি ভয় পেয়ে একটু থতমত খেয়ে গেল। তারপর নিজেকে সামলে নিয়ে বলল, আপনি আমাকে চেনেন? আমিও ইচ্ছে করলে এখনই আপনার মাথা কেটে নিতে পারি।’
     বাদশা সামান্য অবাক হয়ে বললেন, ‘কে তুমি?
     বালকটি গম্ভীর মুখে উত্তর দিল, আমি দিল্লির এক বণিকের ছেলে । (কারণ ছেলেটি বাদশাকে চিনতে পেরেছে)। আমার একটা বিস্ত্রী রোগ আছে, প্রতি মাসে একবার করে রোগটি দেখা দেয়, আর তিন-চারদিন থাকে। সে তিন চারদিন আমার কোনও জ্ঞানগম্যি থাকে না। এলোমেলো যা খুশি বকি, যা খুশি করি। আজ এ-মাসের সেই রোগের প্রথম দিন। সেজন্য উলটোপালটা কথা বলে ফেলেছি। বাদশা বালকটির উপস্থিত বুদ্ধিতে খুশি হয়ে তাকে একটু আদর জানিয়ে চলে এলেন। এবং বলে গেলেন, আবার তোমার সঙ্গে আমার শীঘ্র সাক্ষাৎ হবে।’
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য