ব্যাঙের উপকার -- মোল্লা নাসিরউদ্দিন

     একদিন নাসিরউদ্দিন তাঁর প্রিয় গাধায় চড়ে এক পুকুরের পাড় দিয়ে যাচ্ছেন, এমন সময় গাধাটার জল-পিপাসা পেতে সুযোগ বুঝে সে মালিক সমেত নীচে নামতে লাগলো।
     ব্যাপার-স্যাপার বুঝে তো মোল্লার চক্ষু চড়কগাছ। এই বুঝি ঢালু পাড় থেকে সোজা পুকুরে পড়েন। সবচেয়ে দরকারী কথা, মোল্লার সাঁতার জানা নেই !
     এদিকে, পুকুরটায় ছিল বেশ কিছু কোলা ব্যাঙ। গাধাটাকে জলের দিকে আসতে দেখেই—তাদের সমস্বরে ঘ্যাঙর-ঘ্যাং ডাক শুরু হয়ে যায়। —প্রতিবাদ কিনা, কে জানে।
     ব্যাঙদের ব্যাঙর-ঘ্যাং শুনে গাধাটা তো ভয় পেয়ে পিছু হটে এসে আবার চলতে শুরু করলো।
    তখন নাসিরউদ্দিন পকেট থেকে পয়সা বের করে পুকুরে ছুড়ে দিয়ে ব্যাঙদের উদ্দেশ্যে বললেন –“বাবা ব্যাঙেরা, তোরা আজ আমার কী যে উপকার করেছিল, তা বলার নয়। এই পয়সা দিয়ে কিছু কিনে টিনে খেয়ো বাবারা!’
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য