চাঁটি -- মোল্লা নাসিরউদ্দিন

    একদিন নাসিরউদ্দিন অন্যমনস্কভাবে বাদশার দরবার থেকে ফিরছেন, এমন সময় পেছন থেকে কে যেন এক চাঁটি মারলো। বিস্মিত নাসিরউদ্দিন পেছন ফিরতেই সেই অপরিচিত লোকটি বলে— ‘দুঃখিত আমি ভেবেছিলাম আপনাকে আমার এক চেনা বন্ধু বলে। তাই ও-রকম দুষ্টুমি করেছি, ভারী দুঃখিত আমি।’
    চাঁটিটা জোর লেগেছিল, তাই মোল্লা ঐ দুঃখ প্রকাশে সন্তুষ্ট না হয়ে কাজির কাছে নালিশ পেশ করলেন।
    ঐ চাঁটি-মারা লোকটার আত্মীয় ছিলেন কাজীসাহেব। তাই উভয়পক্ষের কথা শুনে বললেন— মোল্লার মাথায় চাঁটি মারা অন্যায় হয়েছে। তাই আমি অপরাধীকে এক আনা জরিমান করলাম।’
    অপরাধী লোকটির কাছে এক আনাও ছিল না। পকেট হাতড়ে বলে, ‘ধর্মাবতার, আমি এক্ষুণি বাড়ী গিয়ে জরিমানার পয়সা আনছি, ওঁকে অপেক্ষা করতে বলুন।’
    লোকটি গেছে তো গেছে, আসার নাম নেই। বেলা গড়িয়ে আদালত বন্ধ হতে যাচ্ছে দেখে মোল্লা কাজির এজলাসে উঠেই কাজীর মাথায় মারলেন এক চাটি। বললেন—‘কাজীসাহেব, ঐ লোকটা ফিরে এলে এক আনা পয়সা নিয়ে নেবেন। ওটা এখন আপনারই তো পাওনা।’
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য