হাঁসের গান

একটি লোক শুনেছিল হাঁসদের কণ্ঠস্বর নাকি বড় মধুর, খু-উব ভাল গাইতে পারে তারা, তাই বাজারে হাঁস বিক্রি হতে দেখে একটা কিনে নিয়ে এল সে বাড়িতে |
এরপর বাড়িতে সে একদিন বন্ধুকে খাবার নিমন্ত্রণ করেছে । তারা এসে খেতে বসেছে এমন সময় সে হাঁসটিকে নিমন্ত্রিতদের সামনে ধরে নিয়ে এসে বললে, আমার এ বন্ধুদের একটু গান শোনাও ত তুমি!
এ কথা বলল বটে লোকটা কিন্তু তা শুনে হাঁসের গলা দিয়ে একটু শব্দও বেরুল না । 
এর কিছুদিন পর হাঁসটির অসুখ হওয়ায় সে যখন মরতে যাচ্ছে তখন সে অতীব করুণ অথচ দিব্যমধুর কষ্ঠে গান গাইতে শুরু করল। এই নাকি হয়—হাঁসেরা যখন বোঝে তাদের মৃত্যু ঘনিয়ে আসছে তখন তারা এমনি গান গায়। মৃত্যুর সময় হাঁসটিকে এমন গান গাইতে শুনে বাড়ির মালিক বললে, মৃত্যুর সময় ছাড়া গান গাও না—এ যদি আমার আগে জানা থাকত—ত হ’লে সেদিন বন্ধুদের খাওয়ার সময়ই তোমার জবাইয়ের ব্যবস্থা করতাম আমি ।

উপদেশ: অনুরোধে কাজ আদায় না হলে জবরদস্তির দরকার হয় বই কি। হাঁসের গলায় গান, যখন যায় তার প্রাণ। 
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য