চোরাকারবারি নাসিরউদ্দিন-- মোল্লা নাসিরউদ্দিন

গাধাবাহন মোল্লা নসিরুদিন প্রায়ই পারস্য থেকে গ্রীসে যাওয়া আসা করেন । যাবার সময় গাধার পিঠে থাকতো দু-তিন আঁটি খড়-বিচুলি, আসার সময় কোন-কিছুই না ।
সীমাস্তের রক্ষীরা প্রতিবারেই ভালভাবে গাধা এবং মোল্লা দু’জনকেই খানাতল্লাশ করতো, কোন কিছু বে-আইনী জিনিষপত্র পেতো না ।
এদিকে নাসিরুদ্দিন এহেন যাতায়াতে সংসারের হাল ফিরে যাচ্ছে। প্রতিবেশীরা জিগ্যেস করলে নাসিরুদ্দিন বুক ফুলিয়ে বলতেন, 'আমি চোরাচালানের ব্যবসা করি।’
সবাই ভাবতো তিনি ঠাট্টা করছেন।
একবার নসিরুদ্দিন চললেন মিশরে । সেখানে এক সীমান্তরক্ষীর সঙ্গে আলাপ ক্রমে তা দাঁড়ালে বন্ধুত্বে । সে জিগ্যেস করে, বন্ধু, এখন তাঁ আপনি গ্রীস আর পারস্য দুই সীমান্তেরই বাইরে। বলুন তো সত্যি করে, আপনি এমন কি মাল চালান দেন যা এযাবৎ কেউ কোনোদিন ধরতেই পারলো না ?
গাধা চালান দিই রে গাধা,’-বন্ধুকে জ্ঞান দিলেন নাসিরুদ্দিন ।

Previous
Next Post »
0 মন্তব্য