কাজির বিচার

একবার একটি বেঁটে মানুষের কাছ থেকেবহু ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ায় কাজিসাহেব বেঁটে মানুষ দেখলেই রেগে যেতেন। তাঁর ধারনা ছিল বেঁটে মানুষমাত্রেই বদলোক হয়। তাই কোনও বেঁটে মানুষ তাঁর কাছে নালিশ জানাতে এলে তিনি তাকে তাড়িয়ে দিতেন। কোনওমতেই তার কথা শুনতেন না। 

একদিন একটি বেঁটে মানুষ কোনও এক লোকের নামে কাজির কাছে নালিশ জানাতে আসামাত্র কাজি চটে চিৎকার করে বললেন, এক্ষুনি আমার সামনে থেকে চলে যাও। কোনও বেঁটে মানুষকে বিশ্বাস করি না আমি। তোমার নালিশ মিথ্যা। 
তুমি কখনই সত্য কথা বলতে পারো না।’ 


ফরিয়াদি হাতজোড় করে বলল, “হুজুর, আসামি আমার চেয়েও বেঁটে। সেইজন্যই আপনার কাছে আমি নালিশ করতে এসেছি।’ 

কাজি শাস্ত হয়ে বললেন, তাহলে বলো, কী তোমার নালিশ। আমি এক্ষুনি আসামিকে গ্রেপ্তার করিয়ে আনাচ্ছি। নালিশ শুনেই কাজি সঙ্গে সঙ্গে সেই বেঁটে লোককে গ্রেপ্তার করবার আদেশ দিলেন।
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য