অযোগ্য বিচারক

একদিন এক গাধা এক বুলবুল পাখিকে বলল, ভাই!  তোমার কন্ঠের অনেকেই প্রশংসা করে থাকে। তুমি সেই প্রশংসা পাওয়ার যোগ্য কি না তা জানার জন্য আমি নিজ কানে তোমার কন্ঠের গান শুনতে ইচ্ছুক।
বুলবুলি পাখি এই কথা শুনে খুব সুমধুর সুরে নানা ধরনের গান শোনাতে লাগল। প্রথম সে কিচিরমিচির করে আশ্চর্য সুর তুলতে লাগল। তারপর সে কত রকম সুরে গান শুনাল তার শেষ নেই। দূর পাহাড় থেকে মনে হচ্ছিল যেন কেউ সুমধুর সুরে বাঁশি বাজাচ্ছে। ঝরনার জল গড়িয়ে পড়ার সময় যে রকম শব্দ হয়, নদীর জলের স্রোতের যেরকম শব্দ হয় সেই রকম মনভোলান সুরে সে গান শোনাচ্ছিল। তার গান শুনে রাস্তার পথিক থেমে গিয়ে গাছের উপরের দিকে তাকিয়ে রইল। গাছের পাখিরা নিঃস্তব্ধ হয়ে একমনে তার গান শুনছিল। এমন সুমধুর সুর, যেন স্বর্গ থেকে আসছিল। এমতবস্থায় বুলবুলি পাখি গান থামাল।

গাধা বলল, “ গান তোমার মন্দ হয় নি, তবে পশুপাখির ঘুমানোর আগে হাই না তুলেও তোমার গান শুনলেই তাদের ঘুম পাবে। ভাই! দুঃখের বিষয় হল, তোমার কণ্ঠকে আরো উন্নত করার জন্য এই গ্রামের মোরগের কাছে তোমার দু’একদিন প্রশিক্ষন নেওয়া উচিৎ।

গাধার এই ধরনের নিন্দা শুনে বুলবুল পাখি অবাক হল। সে আপমানে কিছুতেই সেখানে থাকতে পারল না, ডানা ঝাপটে দূরে উড়ে গেল।

উপদেশ: অযোগ্য ব্যক্তির কাছে নিজের যোগ্যতার পরিচয় নিতে নেই।
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য