ধৈর্যের গুণ

কয়েক দিন ঠিকমতো খেতে না পেয়ে এক শেয়ালের পেটটা বড় শুকিয়ে গিয়েছে। খাবারের খোঁজে যেতে যেতে হঠাৎ তার চোখে পড়ল এক ওক গাছের  কোঠরের মধ্যে বেশি কিছু রুটি আর মাংস। রাখালছেলেদের কেউ হয়তো পরে খাবে বলে রেখে দিয়েছে। শেয়ালটা ঐ খাবার দেখেই গাছের ঐ কোঠরের ভেতরে ঢুকে খাবারগুলি গপগপ করে খেয়ে নিল। ফলে পেটটা হয়ে উঠল তার দারুণ মোটা। এবার সে যে আর কোঠর থেকে বেরুতে পারে না। কিছুতেই বেরুতে না পেরে সে কেঁউ কেঁউ করে কাঁদতে লাগল।
আর এক শেয়াল তখন ঐ গাছের সোমনে দিয়ে যেতে যেতে তার কান্না শুনে বললে, কি হল ভাই, তোমার! তুমি কেঁউ কেঁউ করছ কেন?

প্রথম শেয়ালটা তখন তার মুশকিলের কথা তাকে খুলে বলায় সে বললে, ওঃ এই বুঝি! তা একটু সবুর করো, পেট তোমার আবার আগেরকার মতো শুকনো হোক, তখন অনায়াসে তুমি ঐ  কোঠর থেকে বেরিয়ে আসতে পারবে।

উপদেশ: ধৈর্য ধরে থাকতে পারলে অনেক ঝঞ্ঝাটই এক সময় কেটে যায়। সবুরে মেওয়া ফলে।
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য