দয়ালু হাতেম তাই

হাতেম তাইকে নিয়ে অনেক গল্প আছে। তিনি ছিলেন একজন মহানুভব, পরোপকারী ব্যক্তি। গরিব-দুঃখীর বন্ধু। মানুষের জন্য জীবন পর্যন্ত উৎসর্গ করতে তিনি প্রস্তুত। মানুষের মুখে মুখে ছিল হাতেম তাইয়ের গুণের কথা। তারা ভাবত-- এরকম মহামানব দুনিয়াতে দুটি নেই।
একদিন।
কয়েকজন লোক গেল হাতেম তাইয়ের সঙ্গে দেখা করতে। তারা বলল- আপনার চেয়ে হৃদয়বান ও গুণবান মানুষ পৃথিবীতে আর কেউ নেই। হাতেম তাই বিনীতভাবে বলল-- না না, এই কথা ঠিক নয়। আমি  একজন সামান্য মানুষ। আমার চেয়ে গুণবান ব্যক্তি অনেকে আছে। আমরা তাঁদের দেখতে পাই না।
কৌতূহলি লোকজন জানতে চাইল-- কোথায় তাঁরা?
-- সবখানেই আছেন তাঁরা। যেমন সামান্য একটা ঘটনার কথা বলছি তোমাদের। এবার চল্লিশটা উট কোরবানি দিলাম আমি। সকলকেই দাওয়াত করলাম। আমির থেকে ফকির সবাই আমার নিমন্ত্রিত অতিথি। খানাপিনার ঢল বয়ে গেল আমার বাড়িতে।

বিমেষ এক কাজে আমাকে কিছুক্ষণের জন্যে সেদিন বাইরে যেতে হয়েছিল। পথে যেতে যেতে নজরে পড়ল, একজন কাঠুরিয়া কাঠ কাটছে। তার কাছে গিয়ে জিজ্ঞেসা করলাম-- কিহে ভাই, কাঠ কাটছ কেন? সেখানে গেলেই তো আজ খানা পাবে।
কাঠুরিয়া ক্লান্তভাবে আমার দিকে তাকাল-- আমি পরিশ্রম করে খাই। যতদিন শরীরে শক্তি আছে ততদনি কাজ করে খাব। কোন ব্যক্তির আতিথেয়তা বা অনুগ্রহ লাভ করে আমি বেঁচে থাকতে চাই না।
হাতেম তাই তখন কৌতূহলী লোকগুলোর উদ্দেশ্যে বললেন--এই যে একজন সামান্য কুঠিরিয়া, নিশ্চিতভাবে সে আমার চেয়েও বেশি গুণী ব্যক্তি। তাঁর প্রতি শ্রদ্ধায় আমার মাথা নত হয়ে আসে।
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য