বক জাতক

একবার বনের মাঝখানে এক পদ্মসরোবরের পাশে বৃক্ষদেবতা হয়ে জন্মেছিলেন বোধিসত্ত্ব। পাশে একটি ছোট পুকুর ছিল। গরমকালে সেই পুকুরের জল শুকিয়ে যেত। সেই পুকুরের মাছেদের দিকে তাকিয়ে থাকতে থাকতে একদিন এক বক ভাবল, ‘ কি করে এদের ঠকিয়ে খাওয়া যায়।’ তারপর খুব দুঃখী দুঃখী ভাব করে সে পুকুরের ধারে বসে রইল।

মাছরা তাকে ঐ রকমভাবে বসে থাকতে দেখে একটু অবাক হল। মাছেরা তাকে জিজ্ঞেস করল, ‘আপনি এরকম মুখ শুকনো করে বসে আছেন কেন?’
‘চিন্তা করছি ভাই।’
কিসের চিন্তা?’
‘তোমাদের কথা ভাবছি।’
‘আমাদের জন্য আবার কিসের চিন্তা?’
‘পুকুরের জল তো ফুরিয়ে এল, এখন তোমাদের কি হবে।’
‘কি করা উচিৎ চলুন তো?’
‘আমার কথা যদি বিশ্বাস কর, তাহলে বলি রাস্তা একটা আছে। দূরে এ পদ্মসরোবর আছে, সেখানে প্রচুর জল। যদি রাজি থাক তাহলে তোমাদের সবাইকে এক এক করে আমি সেখানে রেখে আসতে পারি।’
‘অদ্ভুত কথা শোনালেন আজ। মাছের দুর্গতি নিয়ে বক চিন্তিত, এইটি কিন্তু আগে কখনো শোনা যায় নি।’
‘তোমরা যদি বিশ্বাস না কর তাহলে যে কোন একজন আমার সঙ্গে চল। যে ফিরে এসে যদি বলে যে সত্যি এ রকম সরোবর আছে তখন বিশ্বাস করো।’
মাছেরা ভাবল এ পরামর্শ খারাপ না। তখন তারা একটা বুড়ো কানা মাছকে বলল দেখে আসতে। বক তাকে ঠোঁটে করে নিযে গলে। মাছটি ফিরে এসে বলল, ‘হ্যাঁ সত্যি, খুব সুন্দর এক সরোবর দেখে এলাম।’ এখন সব মাছ বক কে বলল, ‘আপনি খুব মহৎ দেখছি। এখন আমাদের সবাইকে নিযে চলুন।’

বক প্রথমে কানা মাছকে ঠোঁটে নিয়ে উড়ল। সরোবরের কাছাকাছি এক গাছে বসে সে কানা মাছকে খেয়ে ফেলল। কাঁটাগুলো মাটিতে পড়ে রইর। এইভাবে সে একের পর এক সব মাছ খেয়ে শেষ করে ফেলল।

শেষে ঐ মজা পুকুরে একটা কাঁকড়া পড়ে রইল। বকের ইচ্ছে, কাঁকড়াকেও খেয়ে ফেলা। কাঁকড়া বকের ঠোঁটে করে যেতে চাইল না। সে বলল, ‘আমার দাঁড়া দিয়ে যদি তুমি তোমার গলা ধরতে দাও তাহলে যাব।’ বক তাতেই রাজি।

উড়ে যেতে যেতে তারা সেই সরোবরের কাছে এসে পড়ল। বক তখন সেই গাছটার দিকে উড়ে যাচ্ছে। কাঁকড়া বলল, ‘ ভাই, তুমি সরোবর ফেলে চলে যাচ্ছ কেন? বক তাকে বলল, ‘আমি কি তোর চোদ্দপুরুষের চাকর যে তোকে সরোবরে পৌছে দেব? এক্ষুণি ধরাধাম ছেড়ে স্বর্গে যাবি।’ কাঁকড়া দাঁড়া একটু শিথিল করল বটে, কিন্তু সরোবরে নামার আগের মুহূর্তে এমন মোক্ষম কামড় দিল যে বকের মাথা আর ধর আলাদা হয়ে গেল।

বোধিসত্ত্ব সব দেখে শুনে মধুর স্বরে বলে উঠলেন, ‘ঠগীদের একবার না একবার বিপদে পড়তেই হবে।’

Previous
Next Post »
0 মন্তব্য