টাকা দেবে গৌরীসেন

    গোপাল এক মুদি দোকান থেকে ধারে প্রায়ই মাল নিত, কিন্তু টাকা শোধ করতে চাইত না। লোকটি খুব সরল প্রকৃতির ছিল। গোপাল রাজা কৃষ্ণচন্দ্রের পেয়ারের লোক বলে দোকানি ও টাকা চাইতে সাহস পেত না যদি রাজ রাগ করেন তাহলে গেছি।
    একদিন দোকানির ভীষণ টাকার দরকার, বাড়িতে অসুখ! গোপাল মাল নিতে এলে দোকানি বললে, ধারে তো রোজই মাল নিয়ে যাচ্ছেন, টাকাটা আমার আজ দরকার আছে, দেবেন?
    দোকানির কথা শুনে গোপাল মুচকি হেসে বললে, আপনার কাজ মাল দেওয়া-দিয়ে যান, আমার কাজ মাল নেওয়া-টাকা যে দেবার সেই দেবে ভাই!
    দোকানি বলল, সেকথা বললে কি চলে দাদা? টাকা কে দেবে তাই বলে মাল নিলে ভাল হয়। আমাকে আর ভাবতে হয় না।
    গোপাল তখন মাথা চুলকে বললে, টাকা আবার দেবে কে? টাকা দেবে গৌরী সেন।
গৌরী সেনের নাম দোকানি কখনও শোনেনি, সে তাই বললে তিনি আবার কে? দোকানী মনে করল হয়ত গৌরীসেন মহারাজের কোষাগারের কোনও লোক বা কেউ কেটা।
    গোপাল বলল, তাজ্জাব ব্যাপার! সবাই যাকে চেনে, তুমি তাকে চেনো না? মালটা দিয়ে দাও। তো বাপু তারপর যাকে জিজ্ঞাস করবে, সেই তোমায় গৌরী সেনের ঠিকানা বাতলে দেবে। তার কাছে দিয়ে আমার নাম বললেই টাকা সঙ্গে সঙ্গেই পাবে।
    দোকানী গৌরী সেনের মত লোকের কথা না জানার জন্য লজ্জা পেল ও ঝটপট যা যা মাল বলল সে মাল দিল।
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য