রাজা আর সেই দুখীনি বৃদ্ধা

একদিন এক রাজপুত্র আর সুনীল বিকেলে খেলতে বেরিয়েছে। রাস্তায় তারা দেখল একজন গরীব বৃদ্ধা পথের ধারে শুয়ে রয়েছে।রাজপুত্র এগিয়ে গিয়ে জিজ্ঞেস করল “তুমি এখানে শুয়ে আছো কেন? কত গাড়ী চলছে,সরে যাও ,ওঠ এভাবে রাস্তায় শুয়ে থেকনা,দুর্ঘটনা ঘটতে পারে”।
-“আমার নড়াচড়া করার শক্তি নেই বাবা,তিনদিন হল আমি কিছু খাইনি”...বৃদ্ধার কথায় খুব দুঃখ হল রাজার। সে এক দৌড়ে বাড়ি গেল, মাকে গিয়ে বলল,”আমায় কিছু খেতে দেবে মা?”রাজপুত্রের মা ছেলেকে কয়েকটা কেক,বিস্কুট আর মিষ্টি দিলেন। রাজপুত্র সেগুল নিয়ে দে ছুট। বৃদ্ধার কাছে এসে বলল “এই নাও ওঠ ,খেয়ে নাও এগুলো”।বৃদ্ধা পরম তৃপ্তি দিয়ে খাবারগুলো খেয়ে রাজপুত্রকে অনেক আশীর্বাদ করলেন “তুমি বড় ভাল ছেলে বাবা, ভগবান তোমার মঙ্গল করুন”। বাড়ি ফিরে রাজপুত্র তার মাকে সমস্ত ঘটনা খুলে বলল। সব শুনে মা বললেন, “আমি খুব গর্ববোধ করছি সোনা আমার , এমনিভাবেই সবসময় তুমি গরীবদের সাহায্য করবে”। রাজপুত্র বলল “আমি প্রাণপণ চেষ্টা করব মা”।


আবীরা মুখার্জী
বয়স: ৮
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য