এক বুড়ির ভারী বস্তা

মক্কা দখলের জন্য মুসলিমদের এক বিশাল বাহিনী মক্কার দিকে অগ্রসর হচ্ছে।এই খবর মক্কাতে পৌছানর পরপরই মক্কার কাফেরদের ভিতর আতংক ছড়িয়ে পড়ল।তারা খুবই ই শঙ্কিত। কারন এই কাফেরেরা মুসলিমদের উপর অনেক অত্যাচার করেছে। মুসলিমদেরকে কে হত্য করেছে এবং দেশ ছাড়তে বাধ্য করেছে। আজ সেই কাফের-মুশরিকদের অনেকেই ভয়ে মক্কা ছেড়ে অন্য এলাকায় চলে যাবার জন্য রওনা দিয়েছে। মক্কার কাফের- মুশরিকরা বড়ই অসহায়, কারন তাদের এমন কোন ক্ষমতা নেই যে, মুসলিমদের কে প্রতিহত করবে। কাফেরদের মধ্যে এক বুড়ি মক্কা থেকে পালিয়ে যাচ্ছে নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য কিন্তু বুড়ি তার জিনিস পত্রে ভরা বস্তাটা নিয়ে ঠিকমত চলতে পারছে না। এসময় একজন ব্যাক্তি এগিয়ে এলেন তাকে সাহায্য করার জন্য। ব্যাক্তিটি বুড়ির বস্তাটি নিজ কাঁধে তুলে নিলেন।
এবং বুড়ির সাথে সাথে তার গন্তব্য পর্যন্ত গেলেন। বুড়ি খুব খুশি হলেন।বুড়ি তাকে জিজ্ঞাসা করলেন।
‘বাবা তোমার বাড়ি কোথায়?’
ব্যাক্তি বললেন, ‘মক্কায়।’
বুড়ি, ‘এখন কোথায় যাবে?’
ব্যাক্তি বললেন, ‘মক্কায়।’
বুড়ি তাকে বললেন, ‘সর্বনাশ! তুমি মক্কাতে যেওনা।মক্কাকে আবদুল্লার পুত্র মোহাম্মদ(স:) দখল করতে আসছে। আমি শুনেছি সে খুব খারাপ লোক।সে মক্কার সব মানুষকে হত্য করবে।সে তোমাকেও হত্যা করবে। তার হাত হতে বাচার জন্যই- ত আমরা পালিয়ে এসেছি। তবে তুমি খুব ভাল মানুষ।তোমরা মত ভাল লোক এখন আর দেখা যায় না। আমার অনেক বড় উপকার করলে তুমি ‘
‘বাবা তোমার নামটা কি?’
ব্যাক্তি বললেন, ‘মোহাম্মদ ।’
বুড়ি অবাক হয়ে গেলেন।
‘তুমি কি আবদুল্লহর পুত্র মোহ্ম্মদ(স:)?’
ব্যাক্তি উত্তর দিলেন, ‘হ্যাঁ।’
বুড়ি বললেন, ‘আমি যা শুনেছিলাম তুমি ত মোটেই তেমন নও।’
বুড়ি রাসুল(স:) আচরনে মুগ্ধ হয়ে তখনি ইসলাম গ্রহনকরলেন।

[লেখাটি পাঠিয়েছেন: গোলাম মওলা আকাশ]
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য