ধৈর্য -তারাপদ রায়

একটি ক্ষৌরকর্মশালায় ক্ষৌরকার মহোদয় সযত্নে চুল কাটছেন। আর ঠিক তাঁর পায়ের কাছে নিঃশব্দে, ধৈর্য ধরে একটি বিরাট কুকুর খুব মনযোগ সহকারে প্রভুর কেশকর্তন দেখছে।
আজকের খদ্দেরটি নতুন। তিনি কেশচর্চায় কুকুরটির এই অভিনিবেশ দেখে ক্ষৌরকারকে বললেন, ‘দাদা আপনার কুকুরটি কিন্তু খুব শিক্ষিত। কীরকম চুপচাপ বসে, কোনও গোলমাল না করে আপনার চুল কাটা দেখে যাচ্ছে।’
ক্ষৌরকার বললেন, ‘শিক্ষিত না ছাই! ও একটা লোভী, অতি লোভী কুকুর।’
সরল প্রকৃতির খদ্দের বললেন, ‘লোভ? লোভ আবার কী? চুলকাটা দেখার মধ্যে লোভের কী আছে?’
মৃদু হেসে ক্ষৌরকার বললেন, ‘আমি আবার একটু অন্যমনষ্ক কি না, অনেক সময় চুল কাটতে কাটতে কাস্টমারদের ঘাড়ের মাংস, কানের লতি এই সব হঠাৎ কেটে ফেলে বসি। ও আবার কাঁচা মাংস খুব ভালবাসে। তাই ধৈর্য ধরে ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকে।’

[রম্যরচনা ৩৬৫ – তারাপদ রায়]

লেখাটি পাঠিয়েছেন: সুমন দাস
Previous
Next Post »
0 মন্তব্য