মজার ছড়া: চিঁহি বাহাদুর

হাসতে থাকে মিহি      ঘোড়ার মতো চিঁহি
হাসির চোটে গাছের ডালে বসে,
দেখলো ভারি পেট ভরা তার রসে।

প্রশ্ন কর গিয়ে:            হাসার কারন কী হে?
বলবে হেসে: হাসছি কোথায় ওরে?
কাঁদার সময় এমনি দেখায মোরে।

আকাশ ভরা মেঘে          তাই দেখে সে রেগে
হাত গুটিয়ে ভীষণ পাকায় মুঠী
গরুর মতো ড্যাবাড্যাবা চোখ দুটি।
বলবে কেহ ডেকে:            রাহলে কী হে দেখে?
বলবে রেগে: না তো মিথ্যে যত--
বসে আছি শান্ত ছেলের মতো।

রামছাগলের ঘাড়ে             দেখবে যখন তারে,
তখন যদি প্রশ্ন কর এসে:
ছাগল চড়ে চলছ কোন এক দেশে?
কান দুলিয়ে তার                আর বাঁকিয়ে ঘাড়
বলবে: না তো বলিস কী রে তোরা?
এটা যে মোর আর দেশের ঘোড়া!

সন্ধে-দুপুর ভোরে                তিন রাস্তার মোড়ে
ঘোড়ামুখোর গানের ছোটে খৈ--
গাধার মতো করবে সে হৈচৈ।
বলবে: হে শ্রীমান,               গাইছ কে গান?
বলবে: কোথায় গাইছি আমি ভাই,
ছ’মাস হল মুখে যে রা নাই।

ধিনা ধিনা ধিন করে             সদর রাস্তা ধরে
চলতে থাকে হয়তো কারুর পিছু।
সবাই ভাবে কাজ রয়েছে কিছু।
কিন্তু যদি বল:                    অমনি কেন চল?
বলবে: না তো! ভীষণ আড়ি দিয়ে
ন’দিন যাবৎ রইছি যে দাঁড়িয়ে

[--ফয়েজ আহমদ]

Previous
Next Post »
0 মন্তব্য